Monday , 17 January 2022
সংবাদ শিরোনাম
সেনবাগে বোমা তৈরির সরঞ্জামসহ গ্রেপ্তার-৪

সেনবাগে বোমা তৈরির সরঞ্জামসহ গ্রেপ্তার-৪

January 2, 2022 তে 6:10 pm

সেনবাগ প্রতিনিধি
গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করে নোয়াখালীর সেনবাগ থানা পুলিশ বোমা তৈয়ারী সময় বোমা তৈয়ারীর সরঞ্জাম সহ ৪ জন কে গ্রেফতার করেছে।

ঘটনাটি শনিবার রাত সাড়ে ১২টার সময় উপজেলার কাদরা ইউনিয়নের মগুয়া মকছুদ কেরানি বাড়ীর শহিদ উল্ল্যা চৌধুরীর নতুন বাড়ীতে ঘটে।

এ সময় তিনটি তাজা বোমা, ১৭টি চকলেট বোমা, ৫টি বোমা তৈয়ারী খাজ, ৬টি স্কসটেপ, স্পিন্টার হিসাবে ব্যবহৃত ১১পি ব্রেড, ৫০ গ্রাম পেরাক, তিশ গ্রাম দিয়াশলালায়ের কাঠি ও দিয়াশলাইয়ের খালি প্যাকেট উদ্ধার করেছে। এঘটনায় সেনবাগ থানায় বিস্ফোরক আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। সন্ধ্যায় তাদেরকে নোয়াখালী বিচারিক আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত সেনবাগ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী জানান, রাতে গোপন একটি সুত্রে সংবাদ পায় উপজেলার কাদরা ইউনিয়নের মগুয়া মকছুদ কেরানি বাড়ীর শহিদ উল্ল্যা চৌধুরীর নতুন বাড়ীতে এলাকার চিহিৃত কয়েক জন যুবক ্ওই বাড়ীর পাক ঘরে বোমা তৈরী করছে। এসময় তার নির্দেশনায় থানার এস আই সবুজ চন্দ্র পালের নেতৃত্বে সঙ্গীয় পুলিশ ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে বোমা তৈয়ারীর সময় সরঞ্জাম সহ শহীদ উল্ল্যা চৌধুরী (৫৫), আবির হোসেন (২০), রাকিবুল ইসলাম প্রকাশ রনি (২০) ও আহমেদ হোসন(২০) কে গ্রেফতার করে।

এ সময় তিনটি তাজা বোমা,১৭টি চকলেট বোমা,৫টি বোমা তৈয়ারী খাজ,৬টি স্কসটেপ,স্পিন্টার হিসাবে ব্যবহৃত ১১পি ব্রেড, ৫০ গ্রাম পেরাক, তিশ গ্রাম দিয়া শলালায়ের খালি প্যাকেট উদ্ধার করে। এঘটনায় সেনবাগ থানায় বিস্ফোরক আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। বিকেলে তাদেরকে নোয়াখালী বিচারিক আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।

গ্রেফতারকৃত শহীদ উল্ল্যা চৌধুরী কাদরা ইউপির মগুয়া গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে সে তালাশ টেলিভিশ ২৪.কমের সাংবাদিক হিসাবে পরিচয় দিত।

এ ছাড়াও সে সেনবাগ উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হিসাবে দায়ীত্ব পালন করেছে বলে স্থানিয়রা জানান।

তার বিরুদ্ধে সেনবাগ থানায় চেক প্রতারণার একটি মামলায় ৩বছরের সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামীও সে।

অপর আসামীরা হলো একই এলাকার বেচু মিয়ার ছেলে আবির হোসেন (২০) মোঃ জাফর উল্ল্যা ছেলে রাকিবুল ইসলাম প্রকাশ রনি (২০) ও মফিজ উল্ল্যা ছেলে আহমেদ হোসন(২০)।

তারা সকলে ক্ষমতাসীন ছাত্র সংগঠনের সাথে জড়িত বলে স্থানিয় লোকজন জানান, তবে নিশ্চিত হওয়া যায়নি ।

ওসি মোঃ ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী আরো জানান,আগামী ৫জানুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য ইউপি নির্বাচনে সহিংসতা সৃষ্টির জন্য বোমা তৈয়ারী করছিল। আমরা বিষয়টি খতিয়ে দেখছি।

Share Button

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Scroll To Top