Friday , 23 October 2020
সংবাদ শিরোনাম
৫১ বছরেও রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি মিলেনি ৬৯-এর সেই ঘটনায় নিহত সেনবাগে ৪ শহীদের

৫১ বছরেও রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি মিলেনি ৬৯-এর সেই ঘটনায় নিহত সেনবাগে ৪ শহীদের

February 18, 2020 তে 10:27 pm

জাহাঙ্গীর পাটোয়ারী
১৯ ফেব্রুয়ারি নোয়াখালীর সেনবাগবাসীর জন্য শোকবাহ এক স্মরণীয় দিন।

১৯৬৯ সালের এই দিনে নিহত চার শহীদের রাষ্ট্রিয় স্বীকৃতির দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেছে সর্বস্তরের জনগণ।

প্রতিবছর সেনবাগে মুক্তিযোদ্ধা, ব্যবসায়ী, শিক্ষক, ছাত্রদের অংশগ্রহনে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়। এতে বিভিন্ন শ্রেনী পেশার লোকজন অংশ গ্রহন করেন।
জানা গেছে, ১৯৬৯’র এ দিনে সার্জেন্ট জহুরুল হক ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড. সামসুজ্জোহা কে হত্যার প্রতিবাদে নোয়াখালীর সেনবাগে কালো দিবস পালন কালে পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছিলেন চার যুবক। এরা হলেন, পৌরশহর অর্জুনতলা গ্রামের অফিজের রহমান, বাবুপুর গ্রামের আবুল কালাম, জিরুয়া গ্রামের সামছুল হক ও মোহাম্মদপুর গ্রামের খুরশিদ আলম।

ওই সময় পুলিশের গুলিতে আরো ১৮জন গুরুত্বর আহত হয়েছেন। কিন্তু দীর্ঘ ৫১ বছর পেরিয়ে গেলেও ৬৯-এর সেই ঘটনায় নিহত ও আহতদের পরিবার পায়নি রাষ্ট্রীয় কোন সুযোগ সুবিধা এবং সংরক্ষন করা হয়নি শহীদদের কবর। তৎকালীন সময়ে ঘটনার দু’দিন পর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সেনবাগে এসে নিহত শহীদের কবর জিয়ারত করে পরিবারের লোকজনের মাঝে ৫’শত টাকা অনুদান ও একটি করে সনদপত্র তুলেদেন।

সরকারি ভাবে কোন সুযোগ সুবিধা না পেলেও জিরুয়া গ্রামের শহীদ সামছুল হকের মা স্বামীর সম্পত্তি বিক্রি করে পুত্রের কবর পাকা করণ ও ছেলের নামে একটি মসজিদ নির্মাণ কাজ শুরু করে ইন্তেকাল করেন।

উল্লেখ্য, প্রতি বছর ১৯ ফেব্রুয়ারি নিহত চার শহীদের রাষ্ট্রিয় স্বীকৃতির দাবিতে বিভিন্ন সংগঠন মানববন্ধন, স্মারকলিপি নানা কর্মসূচী পালন করে আসছে।

Share Button

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Scroll To Top