Thursday , 22 October 2020
সংবাদ শিরোনাম
সেনবাগ-প্রতাপপুর সড়ক সংস্কারের বছর না যেতেই ভাঙ্গন

সেনবাগ-প্রতাপপুর সড়ক সংস্কারের বছর না যেতেই ভাঙ্গন

January 13, 2020 তে 4:22 pm

জাহাঙ্গীর পাটোয়ারী
সংস্কার কাজের এক বছর না যেতেই সড়ক ও জনপথ বিভাগের (সওজ) নোয়াখালীর সেনবাগ-প্রতাপপুর সড়ক ভেঙ্গে পড়ছে খালে।  সংস্কার কাজের পর পরেই সড়কটিতে ফাটল দেখা দিলেও সংশ্চিষ্ট ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কিংবা সওজ কর্তৃপক্ষ সড়কটির জন্য প্রয়োজনিও কোনো পদক্ষেপ নেয়নি।

এতে সড়ক দিয়ে যান চলাচল করতে করতে ফাটল অংশটি আস্তে আস্তে ভেঙ্গে পড়ছে খালে। ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে সড়কে যান চলাচল।

সরেজমিনে দেখা যায়, সেনবাগ-প্রতাপপুর সড়কের চাঁদপুর শাহ আলম দরবেশের মাজার সংলগ্ন নামক স্থানে প্রায় অর্ধেক অংশে ফাটল দেখা দিয়েছে। ইতিমধ্যে সড়কের বেশ কিছু অংশ খালে ভেঙ্গে পড়েছে।

স্থানীয় বাসিন্দারা দুর্ঘটনা এড়াতে যানবাহনের সতর্কতার জন্য লাল কাপড় ঝুলিয়ে দিয়েছেন।

এরপরও দ্রুত গতিতে যানবাহন চলাচল করতে গিয়ে প্রতিদিন প্রায় ছোট-খাট দুর্ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছেন স্থানিয় লোকজন। এতে সড়কটি দিন দিন ঝুঁকিপূর্ণ উঠছে।

স্থানীয় এলাকাবাসী জানান, সড়কটি পূর্বে ছিলো ১২ ফুট প্রপ্শস্ত । বছর খানেক আগে সওজের উদ্যোগে সড়কটি সংস্কারের পাশাপাশি ১৮ ফুট প্রশস্ত করা হয়। কিন্তু প্রশন্ত ও সংস্কারের সময় সড়কের পার্শ্ববর্তী খালে ভাঙ্গন প্রতিরোধক দেয়াল কিংবা দৃশ্যমান কোন কিছুই করা হয়নি। এতে সড়কটির চাঁদপুর গ্রামের শাহ আলম দরবেশের মাজারসংলগ্ন এলাকা সহ একাধিক স্থানে ভাঙ্গন দেখা দেয়।

স্থানীয়দের অভিযোগ, শুরুর দিকে সড়কের পাশের কিছু অংশ ফাটল দেখা দেয়। গাড়ী চলতে চলতে এরপর আস্তে  আস্তে সড়কটি ভেঙ্গে পড়াতে শুরু করে। কিন্ত কর্তৃপক্ষ ভাঙ্গন প্রতিরোধ প্রয়োজনিও ব্যবস্থা না নেওয়ায় বর্তমানে সড়কের প্রায় অর্ধেক অংশ ভাঙনের মুখে পড়েছে। এখনো ভেঙ্গে পড়া অংশ মেরামত কিংবা প্রতিরোধে কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি।

এব্যাপারে সড়কে যাতায়াতকারী অটোরিকশাচালক বেলাল হোসেন বলেন, সড়কের একপাশের কিছু অংশ ফাটল দেখা দেওয়ার পর খালে ভেঙ্গে পড়ায় গাড়ি চালানো ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে ওঠেছে। সড়কের ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা কিছু দূর্ঘটনার পর আমরা সতর্কতার সঙ্গে চলতে হয়।

স্থানিয় নজরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সহিদুল ইসলাম জানন, ঝুঁকির কারণে বড় গাড়ী মালামাল নিয়ে ওই সড়কে যাতায়াত বন্ধ করে দিয়েছেন শুনেছি। তবে আমরাও যাতায়াত করতে সতর্কতার সাথে যাওয়া আসা করি।

নোয়াখালী সড়ক ও জনপথ বিভাগের কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে তিন কোটি টাকা ব্যয়ে সেনবাগ থানার মোড় থেকে ফেনীর দাগনভূঞার প্রতাপপুর পর্যন্ত তিন কিলোমিটার সড়ক ১২ থেকে ১৮ ফুট প্রশস্ত করা হয়।

মেসার্স ছালেহ আহমদ নামের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান সড়কটির নির্মাণে কার্যাদেশ পায়।

সওজ নোয়াখালী কার্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী বিনয় কুমার পাল বলেন, সেনবাগ-প্রতাপপুর সড়কের কিছু অংশ খালে ভেঙ্গে পড়ার বিষয়টি সম্পর্কে তিনি অবগত আছেন। এ বিষয়ে তিনি নিজেই সংশ্চ্রিষ্ট ঠিকাদারের সঙ্গে কথা বলেছেন।

ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের ভেঙ্গে পড়া সড়ক অল্প সময়ের মধ্যে মেরামত করে দেওয়ার কথা।

Share Button

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Scroll To Top